• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
  • ||
  • আর্কাইভ

বেপরোয়াগতিতে মোটরসাইকেল চালানোর খেসারত! প্রাণ গেলো দুই এসএসসি পরীক্ষার্থীর

প্রকাশ:  ২৫ নভেম্বর ২০২১, ১১:৫৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

 বেপরোয়াগতিতে গাড়ি, মোটরসাইকেল চালনায় কত প্রাণ যে বলি হতে হবে তার হিসেব কেউ দিতে পারবে না। কারণ নিয়ন্ত্রণহীন, উচ্ছৃঙ্খল ও বেপরোয়াগতিতে গাড়ি চালানোও বন্ধ হবে না, সড়কে মর্মান্তিক মৃত্যুও বন্ধ হবে না। এমন এক দুর্ঘটনায় দুটি তাজা প্রাণ ঝরে গেলো মঙ্গলবার রাতে। এসএসসি পরীক্ষার শেষদিনে সখ আর আনন্দ করতে গিয়ে লাশে পরিণত হলো দুই পরীক্ষার্থী। বেপরোয়াগতিতে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে প্রাণ গেলো শান্ত ও আশিক নামে দুই এসএসসি পরীক্ষার্থী একই বাড়ির চাচাতো ও জেঠাতো ভাইয়ের।
চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের চাঁদপুর সদর উপজেলার মহামায়া বাজারের পশ্চিম পাশে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয়রা জানান। ঘটনাস্থলেই মারা যান শান্ত (১৭), আর হাসপাতালে মারা যায় আশিক (১৮)। তাদের বাড়ি চাঁদপুর সদর উপজেলার আশিকাটি ইউনিয়নের হাফানিয়া গ্রামে। এ দুর্ঘটনায় আহত হন নজরুল ইসলাম (৭৫) নামে এক মুক্তিযোদ্ধা পথচারী এবং সাজ্জাদ নামে আরো এক মোটরসাইকেল আরোহী।
স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, সাজ্জাদ, আশিক ও শান্ত নামের ৩ যুবক মোটরসাইকেলযোগে উক্ত স্থান অতিক্রম করছিলো। এ সময় তাদের মোটরসাইকেলটি ছিলো বেপরোয়াগতিতে। নজরুল ইসলাম নামে এক বয়োবৃদ্ধ তখন ঘটনাস্থলে রাস্তা পার হতে নিলে মোটরসাইকেলটির গতি আর নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। ফলে মোটরসাইকেলের সাথে প্রচ- আঘাত লেগে মারাত্মক আহত হয়ে সড়কের উপর ছিটকে পড়েন পথচারী নজরুল এবং মোটরসাইকেল আরোহীরা। তখন স্থানীয়রা আহত সবাইকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে আনার পথে আশিকের মৃত্যু হয়। আর মোটরসাইকেল আরোহী শান্ত ঘটনাস্থলেই মারা যায়। সাজ্জাদ ও নজরুল ইসলামের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চাঁদপুর সদর হাসপাতাল থেকে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। নিহত শান্ত চাঁদপুর সদর উপজেলার আশিকাটি ইউনিয়নের হাফানিয়া গ্রামের হানিফ পাটওয়ারীর ছেলে। আর আশিক একই বাড়ির আক্তার পাটওয়ারীর ছেলে।
আশিকাটির হাফানিয়ায় শোকের মাতম
স্টাফ রিপোর্টার ॥ মঙ্গলবার রাতে চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের মহামায়া এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতদের বাড়ি আশিকাটির হাফানিয়ায় শোকের মাতম চলছে। নিহত দুই এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বিদায় জানাতে তার সহপাঠিসহ অন্যরা আসছেন হাফানিয়া গ্রামের পাটওয়ারী বাড়িতে। এমন দুর্ঘটনায় শোকে স্তব্দ একই বাড়ির দুই পরিবার।
এদিকে একমাত্র ছেলে মোঃ শান্ত পাটোয়ারীকে হারিয়ে পাগলপ্রায় প্রবাসী মোঃ হানিফ পাটোয়ারী। মঙ্গলবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে রাতে চাচাতো ভাইয়ের বাইকে (মোটরসাইকেল) আরোহী হয়ে বাকিলায় কফি হাউসে যাওয়ার প্রাক্কালে দুর্ঘটনায় নিহত হয় সে। ছেলের লাশ নিজের কাঁধে নিতে হবে এমন চিন্তাও করেননি বাবা হানিফ পাটওয়ারী।
এদিকে দুর্ঘটনায় আশিক পাটওয়ারী নামের একই বাড়ির আরেক তরুণ নিহত হয়েছেন। নিজ বড় ভাইয়ের গাড়ি নিয়ে চাচাতো ভাই শান্ত ও অপর বন্ধু সাজ্জাদকে নিয়ে এ দুর্ঘটনায় সেও নিহত হয়।
জানা যায়, আশিক ঢাকার কেরানীগঞ্জের কাপড় ব্যবসায়ী আক্তার পাটোয়ারীর ২য় ছেলে। ব্যবসায়িক প্রয়োজনে চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মালামালের টাকা সংগ্রহের জন্যে বড় ছেলেকে উক্ত মোটরসাইকেলটি ক্রয় করে দেন আক্তার পাটওয়ারী। বড় ছেলে ব্যবসায়িক কাজে ঢাকা থাকায় ২য় ছেলে আশিক মোটরসাইকেল নিয়ে চাচাতো ভাই শান্ত ও বন্ধু সাজ্জাদসহ বাকিলা কফি হাউজে যাচ্ছিল। পথে মহামায়ায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় শান্ত ও আশিক নিহত হন। তাদের মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ পুরো পরিবার।

সর্বাধিক পঠিত