• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
  • ||
  • আর্কাইভ

ঈদের মজা

প্রকাশ:  ২৬ এপ্রিল ২০২৩, ০৮:১৯
রাসেল হোসেন বাবু
প্রিন্ট

আমরা একটা সময় পর প্রত্যেকে বলে থাকি যে, আগের ঈদগুলো ভালো ছিল। ছোটবেলায় ঈদ সবচেয়ে বেশি মজার ছিল। বড় হবার সাথে সাথে ঈদের মজা চলে গেছে। আসলে আমার এখানে একটু মতপার্থক্য আছে। আমরা দিন দিন যত বড় হতে থাকি আমাদের ম্যাচিউরিটিটা বা মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতাটা তত বাড়তে থাকে।

রোজার পর যেমনি ঈদুল-ফিতর আসে তারপরে আবার ঈদুল-আযহা আসে। দিনগুলো কিন্তু কন্টিনিউয়াসলি আসতে থাকে বাট আমরা আস্তে আস্তে বড় হওয়াতে আমাদের ম্যাচিউরিটিটা দিন দিন বাড়তে থাকে। যার কারণে আমাদের মনে হয় যে ঈদটা আগেই ভালো ছিল। একটু খেয়াল করলে দেখবেন যে, আমাদের পরবর্তী জেনারেশন কিন্তু ছোট বেলাটায় আমাদের মতই আনন্দ করে আসছে। তারা আবার একটু একটু করে বড় হচ্ছে তাদেরও কিন্তু একটু একটু করে ম্যাচিউরিটিটা বাড়তেছে।

আমার এখনো ছোটবেলার কতহাজারো স্মৃতি মনে পড়ে একবার ঈদে আমার আব্বা আমার জন্য একটা পাঞ্জাবি নিয়ে আসছিল। পাঞ্জাবিটা আমার একদমই পছন্দ হয় নাই। আমার একটা বদ অভ্যাস ছিল কি আমার যেটা পছন্দ হবে না ওটা আমি কখনোই পরবো না। ওই পাঞ্জাবিটা পরিনাই তো পরি নাই। এখনো আলমারিতে আমার ঐ পাঞ্জাবিটা মা যত্ন করে রেখে দিয়েছে। আসলে এরকম কত হাজার স্মৃতি আমাদের আছে যা বলে কখনো শেষ করা যাবে না। ঐসব কথাগুলো চিন্তা করলেই কেমন জানি অন্যরকম একটা অনুভূতি চলে আসে। বড় হওয়ার সাথে সাথে ছোট বেলার ইচ্ছেগুলোও কোথায় যেন হারিয়ে যায়। আমরা ম্যাচিউরড হতে শিখি। একটা সময় পর আর বাবা মার প্রতি ঈদের চাওয়া পাওয়া নিয়ে রাগ অভিমান জমে নাহ। আমাদের দায়িত্ববোধ বেড়ে যায় ফলে ঈদের আনন্দ আর অত বেশি আমাদের মনে জায়গা পায় না।

লেখক : রাসেল হোসেন বাবু, শিক্ষার্থী ইউনিভার্সিটি অফ জিওমেটিকা, মালয়েশিয়া।

সর্বাধিক পঠিত