• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
  • ||
  • আর্কাইভ

শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে চাঁদপুর চেম্বারের মতবিনিময়

আমদানি-রপ্তানি ব্যাহত হয় এমন সিদ্ধান্ত মেনে নেয়া যাবে না :আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম

প্রকাশ:  ০৩ এপ্রিল ২০২২, ১২:৫৩ | আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০২২, ১২:৫৬
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

 ব্যসায়িক প্রাণকেন্দ্র চাঁদপুর পুরাণবাজারের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আমদানি-রপ্তানি কাজে কর্মরত শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেন চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির নেতৃবৃন্দ। গতকাল ২ এপ্রিল শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় চাঁদপুর চেম্বার কার্যালয়ে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম। তিনি বলেন, আমরা আল্লাহর কাছে শোকরিয়া আদায় করছি, তিনি আমাদেরকে বৈশি^ক মহামারি থেকে রক্ষা করেছেন। যদিও দেশ এখনো মহামারি থেকে সম্পূর্ণভাবে মুক্ত হয়নি। প্রতিদিনই কেউ না কেউ আক্রান্ত হচ্ছেন এমন সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে এখনো। করোনার কারণে আমরা শুধু প্রিয়জনদেরকেই হারাইনি, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্য। বর্তমান প্রেক্ষাপটে অনেক কিছুই করোনার পূর্বের অবস্থায় ফিরে আসছে, এই পরিস্থিতি আমাদেরকে ধরে রাখতে হবে। এজন্যে সকলকে সেবার মন নিয়ে কাজ করতে হবে। হুট করে কোনো হটকারী সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। বাজারের আমদানি-রপ্তানি ব্যাহত হয় এমন কোনো সিদ্ধান্ত মেনে নেয়া যাবে না। মালামাল আমদানি- রপ্তানির ক্ষেত্রে শ্রমিকদের পারিশ্রমিক বাড়ানোর দাবি কতটুকু যুক্তিসঙ্গত এবং তা নিরসনে কী পদক্ষেপ নেয়া যায়, তা আলোচনাপূর্বক সমাধান করা হবে বলে তিনি আশ^াস দেন।
তিনি বাজারে ট্রাকঘাট নামে খাজনা আদায়ের ব্যাপারেও অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, অনেক আন্দোলন, সংগ্রাম ও আলোচনার মাধ্যমে বাজার ব্যবসায়ীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে ট্রাকঘাট প্রথা বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, আমরা এখনো ট্রাকঘাট প্রথা নামে রাহুর হাত থেকে সম্পূর্ণভাবে মুক্ত হতে পারিনি। আমরা তা থেকে সম্পূর্ণভাবে মুক্তি চাই। পুরাণবাজারের ব্যবসায়িক ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পুরাণবাজারে ট্রাকঘাট নামে কোনো চাঁদা বা খাজনা আদায় করা যাবে না এবং আমদানি রপ্তানির ক্ষেত্রে হয়রানি করা যাবে না কোনো ব্যবসায়ীকে। তিনি পবিত্র মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় কোনো ব্যবসায়ী যেন অহেতুক পণ্যের দাম বৃদ্ধিপূর্বক ক্রেতা হয়রানি না করেন, সেজন্যে ব্যবসায়ীদের প্রতি অনুরোধ জানান।
সভায় বক্তব্য রাখেন চেম্বার অব কমার্সের সিনিয়র সহ-সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, সহ-সভাপতি তমাল কুমার ঘোষ, চেম্বার পরিচালক মাইনুল ইসলাম কিশোর, আমিনুর রহমান বাবুল, মোহাম্মদ আলী মাঝি (পৌর প্যানেল মেয়র), গোপাল চন্দ্র সাহা ও আলহাজ্ব লিয়াকত পাটওয়ারী। আরো বক্তব্য রাখেন ব্যবসায়ী আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম খান, আলহাজ্ব নাজমুল আলম পাটওয়ারী, টিটু সাহা, মানিক সাহা, সুবল পোদ্দার, সবুজ পোদ্দার, প্রমোদ দাস, আলহাজ্ব স্বপন পাটওয়ারী, মানিক পাল, আলহাজ্ব আবুল কাশেম, শংকর সাহা, অনু সাহা, নারু সাহা, চেম্বার অব কমার্সের সচিব আব্দুল মোতালেব শেখ টুটুল প্রমুখ। শ্রমিক নেতৃবৃন্দের মাঝে বক্তব্য রাখেন বাতাসা পট্টি লেবার ইউনিয়নের সভাপতি সামছল মাঝি, সহ-সভাপতি মনির খান, সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দিন মৃর্ধা, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান দেওয়ান প্রমুখ।
উল্লেখ্য, পুরাণবাজার বাতাসা পট্টির মালামাল আমদানি-রপ্তানি কাজে কর্মরত শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পারিশ্রমিক বাড়ানোর দাবিতে গত ২৯ মার্চ সকালে আমদানি-রপ্তানি কাজ বন্ধ করে দেন এবং বাজার এলাকায় মিছিল করেন। এর প্রেক্ষিতে চেম্বার সভাপতি আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিমের হস্তক্ষেপে তারা আন্দোলন স্থগিত করেন এবং কাজে ফিরে যান। সৃষ্ট সমস্যা সমাধানে গতকাল বাজার ব্যবসায়ী ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দকে নিয়ে চেম্বার নেতৃবৃন্দের আয়োজনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

সর্বাধিক পঠিত