• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১
  • ||
  • আর্কাইভ

চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল থেকে ৪ দালাল গ্রেফতার

প্রকাশ:  ০৭ জুন ২০২৩, ১০:৩৫
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতাল থেকে মোঃ মাসুদ (২৬), সবুজ (২২), দীপ দে (২৩) ও হৃদয় দাস (২৫) নামে ৪ দালালকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৬ জুন) দুপুর ১২টার দিকে তাদেরকে হাসপাতাল থেকে গ্রেফতার করেন চাঁদপুর সদর মডেল থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মেহরাজ মাহমুদ। গ্রামাঞ্চল থেকে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা সহজ-সরল রোগীদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করার কারণে  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এদেরকে গ্রেফতার হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
গ্রেফতার মাসুদ শহরের পুরাণবাজার পশ্চিম শ্রীরামদী মৃত মিরাজ বেপারীর ছেলে, সবুজ শহরের কোড়ালিয়া রোডের মোঃ দুলালের ছেলে, দীপ শহরের ঘোষপাড়ার বিষু দের ছেলে এবং হৃদয় শহরের পুরাণবাজার মেরকাটিজ রোডের কানাই দাসের ছেলে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতিদিন সকালে শত শত রোগী আসে হাসপাতালের আউটডোরে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ নেয়ার জন্য। রোগীরা যখন লাইনে দাঁড়িয়ে থাকেন টিকিট কিংবা ঔষধ নেয়ার জন্য, তখনই তারা গিয়ে সিরিয়াল ছাড়া আগে টিকিট এবং ঔষধ নিয়ে দিবেন বলে টাকা নেন। আবার যারা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে চেম্বার থেকে বের হন, তখন তাদেরকে এক রকম জোর করে নিয়ে যান হাসপাতালের সামনে থাকা বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে। যে ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোর দালাল হিসেবে তারা কাজ করেন।
এএসআই মেহরাজ মাহমুদ জানান, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের হয়রানি করার কারণে তারা মোবাইলে ফোনে থানায় অভিযোগ করে। তাৎক্ষণিক হাসপাতালে এসে এই চারজনকে পাওয়া যায় এবং তাদেরকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।
চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবদুর রশিদ জানান, হাসপাতালে আসা রোগীদেরকে দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেণির দালাল বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছে। তারা সাধারণ রোগীদেরকে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার নাম করে তাদের পছন্দের ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যায়। তাদের ফাঁদে পড়ে অনেকেই সঠিক চিকিৎসা সেবা পায় না। আজকে রোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।