• পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩, ১৬ চৈত্র ১৪২৯
  • ||
  • আর্কাইভ

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শান্তি সমাবেশ

মানুষের অধিকার আদায়ের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ বিকশিত হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি

প্রকাশ:  ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০:১১
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগের জন্ম হয়েছে বাংলার মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামের মধ্য দিয়ে। এই সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ বিকশিত হয়েছে। আর বিএনপি-জামায়াত বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে স্বপরিবারে এবং শেখ হাসিনা দেশে পেরার পর গ্রেনেড হামলাসহ ২১বার হত্যা করার অপচেষ্টা চালিয়েছে। রাখে আল্লাহ মারে কে।
শনিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি সমাবেশে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, আল্লাহ যেমন বঙ্গবন্ধুর হাতে এই দেশ স্বাধীন করেছেন, তেমনি চেয়েছেন বঙ্গবন্ধুর কন্যার হাতে এই দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে। অর্থাৎ সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মুক্তি। যে মুক্তির স্বপ্ন পিতা মুজিব দেখিয়ে গিয়েছিলেন। এতবার হত্যার চেষ্টার পরও আল্লাহর অসীম রহমত ও দয়ায় আমাদের রাষ্ট্র নায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ^নন্দিত নেত্রী। তিনি বেঁচে থাকায় তাদের সকল চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে এবং তিনি বেঁচে আছেন এই বাংলার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে।
 ডাঃ দীপু মনি বলেন, বিএনপি ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশকে একটি জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে, দেশকে কতটা পিছিয়ে দিয়েছে। সেই তারা আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। তাদের মোকাবিলা আমরা রাজপথেই করব ইনশাআল্লাহ্। তারা ২০১৪-২০১৫ সালে অগ্নিসন্ত্রাস করে মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে। তারা আবার সেই পথে হাঁটছে। বাংলাদেশের জনগণ তাদের সফল হতে দেবে না। আজকে যখন শেখ হাসিনা দেশকে ডিজিটাল করে এগিয়ে নিচ্ছেন, তখন তারা দেশকে পেছনে নিয়ে যেতে চায়। বাংলার মানুষ তা রাজপথে প্রতিহত করবে।
চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ জহিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী।
তিনি বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ও তাদের দোসরদের পাশবিকতার কথা বাংলাদেশের মানুষ আজো ভুলেনি। ঠিক তেমনি ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত হরতাল অবরোধের নামে ট্রেনে, ট্রাকে, বাসে, সিএনজিতে আগুন দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছিল। সেই রকম কর্মসূচির নামে তাদেরকে আর সহিংসতা সৃষ্টি করতে আমরা দেবো না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দুর্বার গতিতে। শেখ হাসিনা বিশ্বের সবচাইতে বেশি ক্রাইসিস ম্যানেজার হিসেবে পরিচিত হয়েছে। তাই বিএনপি ও তার দোসরদের বিরুদ্ধে আমরা মাঠে আছি এবং থাকবো। রাজপথেই সকল ষড়যন্ত্রের মোকাবিলা করা হবে।
আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রব ভূঁইয়া, ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু, মনজুর আহমেদ মনজু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ আখন্দ, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল প্রমুখ।
সমাবেশে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।